ব্রাজিলে অক্সফোর্ডের করোনা ভ্যাকসিন ট্রায়ালে স্বেচ্ছাসেবকের মৃত্যু

অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের তৈরি করোনা ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে এক স্বেচ্ছাসেবীর মৃত্যু হয়েছে। তবে, গতকাল বুধবার ব্রাজিলের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এ ঘটনায় পুরো ট্রায়াল বন্ধ করে দেওয়া হবে না। 

আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই স্বেচ্ছাসেবককে পরীক্ষাধীন ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে কি না, এখনো তা নিশ্চিত করা যায়নি। কয়েকটি সূত্রে ওই স্বেচ্ছাসেবকের শরীরে কেবল প্লাসবো (খালি ওষুধ) প্রয়োগ করা হয়েছিল বলে জানা গেছে। ব্রাজিলের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ ‘আনভিসা’ পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের চিকিৎসাবিষয়ক গোপনীয়তা বজায় রাখার স্বার্থে স্বেচ্ছাসেবীর মৃত্যুর বিষয়ে বিস্তারিত জানায়নি। এক বিবৃতিতে ব্রাজিলে ভ্যাকসিনের ট্রায়াল চালিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা নিশ্চিত করেছে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়।

বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ‘ব্রাজিলের এই ঘটনা মূল্যায়নের পর, ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের সুরক্ষা নিয়ে কোনো উদ্বেগ নেই। ব্রাজিলের কর্তৃপক্ষের পাশাপাশি স্বাধীন পর্যালোচনাও ট্রায়াল অব্যাহত রাখার পরামর্শ দিয়েছে।’ ব্রাজিলের ভ্যাকসিনের তিনটি ক্লিনিকাল ট্রায়ালে সমন্বয় করছে ফেডারেল বিশ্ববিদ্যালয় সাও পাওলো। ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মারা যাওয়া স্বেচ্ছাসেবক একজন ব্রাজিলের নাগরিক ছিলেন। সিএনএন ব্রাজিল জানায়, স্বেচ্ছাসেবকের বয়স ২৮ বছর। তিনি রিও ডি জেনিরোতে থাকতেন। কোভিড-১৯ জটিলতায় তার মৃত্যু হয়েছে। ব্রাজিল সরকার অক্সফোর্ডের তৈরি ভ্যাকসিন কিনতে ও নিজেদের বায়োমেডিকেল গবেষণা কেন্দ্রে তা উৎপাদনের পরিকল্পনা করেছে।

পাশাপাশি, চীনের সিনোভ্যাক বায়োটেক লিমিটেডের আরেকটি ভ্যাকসিনও সাও পাওলো রাজ্যের একটি গবেষণাকেন্দ্রে পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে। ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত কোভিড-১৯ এ এক লাখ ৫৫ হাজারেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। মৃতের সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্রের পরই ব্রাজিলের অবস্থান। এর আগে অ্যাস্ট্রাজেনকা-অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন পরীক্ষায় যুক্তরাজ্যে এক অংশগ্রহণকারী অসুস্থ হয়ে পড়ায় ট্রায়াল সাময়িকভাবে বন্ধ করা হয়। যুক্তরাষ্ট্রে অ্যাস্ট্রাজেনকার ভ্যাকসিন পরীক্ষা ৬ সেপ্টেম্বর থেকেই বন্ধ আছে। কয়েকটি সূত্রে রয়টার্স জানায়, মার্কিন ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (এফডিএ) পর্যালোচনার পর এ সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রে আবার ট্রায়াল শুরু হতে পারে। ব্রাজিলে স্বেচ্ছাসেবীর মৃত্যুর ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রে পুনরায় ট্রায়াল শুরু করার ক্ষেত্রে কোনো প্রভাব পড়বে কি না, এ সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে আল জাজিরার অনুরোধে এফডিএ সাড়া দেয়নি।

সূত্র: thedailystar .net

Leave a Comment