জেনে নিন অসফল মানুষদের ছয়টি অভ্যাস বা ব্যর্থ হওয়ার কারণ

শুধু কি সফল মানুষদের জীবন ও সাফল্যের গল্প জানলেই কি হয়ে যাবে? তা নয়। জানতে হবে ব্যর্থ হওয়ার কারণে তাহলে সর্তক থাকতে পারবেন যে কি কি কাজ করলে আপনি ব্যর্থ হয়ে যেতে পারেন বা আপনার ব্যর্থতার পেছনে ঠিক কি কারণ রয়েছে। আমরা বিভিন্ন পত্রিকা বা ইন্টারভিউয়ে জানতে পারি যে মানুষ কিভাবে সফল হয়েছে এবং তাদের সাক্ষাৎকার নেই। সফল মানুষদের ব্যাপারে জানা যেমন জরুরি, তেমনি ব্যর্থ বা অসফল মানুষদের ব্যর্থতা বা অসফলতার কারণ জানাও জরুরী। আজকে আমরা আলোচনা করবো অসফল মানুষদের ব্যর্থতার ছয়টি কারণ যে কারণে তারা সাফল্যকে আপন করতে পারেনি। তারা ব্যর্থ হয়েছে। যেন ওই কারণগুলো আপনি জেনে নিজে সর্তক হতে পারেন আর আপনিও ওই ভুলগুলো আর না করেন। চলুন জেনে নেওয়া যাক তাদের ব্যর্থতার ছয়টি কারণ।

ব্যর্থতার কারণ ১: তারা ধনী হবে এটা তারা নিজেরাও চিন্তা করেনিঃ যারা ব্যর্থ হয় তাদের অনেকেরই এ কারণ থাকে যে তারা শুরু থেকেই জেনে এসেছে যে টাকা সকল সমস্যার মূল। টাকা নানা প্রকার বিপদ ডেকে আনে, বড় স্বপ্ন দেখতে নেই এরকম নানা কথা। আচ্ছা আপনি নিজেই ভেবে দেখুন টাকা পয়সার অভাবে কি মানুষ খারাপ পথে নামেনি? অবশ্যই নেমেছে। আবার টাকা পয়সা বেশি ছিল এমন লোকও খারাপ হয়েছে। কিন্তু আপনি যদি টাকা পয়সার সঠিক ব্যবহার করেন তাহলে তো সমস্যা হওয়ার কথা না। টাকা অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ জিনিস কারণ এটি আপনাকে সাফল্যের পথে এগিয়ে যেতে সাহায্য করবে। স্বপ্ন বড় দেখতে হবে। টাকা যদি গুরুত্বপূর্ণ কিছু না হত তাহলে মানুষ কেন টাকা উপার্জনের জন্য রাতদিন কঠোর পরিশ্রম করছে? কেন টাকার অভাবে মানুষ বিনা চিকিৎসায় মারা যাচ্ছে?

ব্যর্থতার কারণ ২: ঢিলেমি করাঃ ধরে নেওয়া গেল আপনি অনেক কাজ জানেন। কিন্তু আপনি যদি না করেন তাহলে কি আপনি সফল হতে পারবেন? পারবেন না। আপনাকে সেটা করতে হবে। আপনি যদি বলেন আমি এটা পারি, ওটা পারি এগুলো করে আমি ধনী হব, সফল হব এটাসেটা অনেক করবো। কিন্তু যদি ঢিলেমি করেন আর কাজ না করেন তাহলে আপনার কি মনে হয় আপনি বসে থেকেই সফল হবেন? হবেন না। অনেক সময় চেষ্টা করলেই যে মানুষ সফল হয় তা কিন্তু না যে চেষ্টা করা থামায় না লেগে থাকে সেই সফল হয়। তাই আকাশ কুসুম চিন্তা না করে কাজে লেগে যান সফল হবেন। বসে থাকবেন না। সাফল্য হেটে এসে ধরা দেয় না। আর অসফল মানুষরা শুধু চিন্তা করে আর পরিকল্পনা করে কিন্তু কাজে তা পরিণত করেনা । তাই তারা ব্যর্থ।

ব্যর্থতার কারণ ৩: তারা শেখা বন্ধ করে দেয়ঃ আমাদের মধ্যে অনেকেই আছে যারা সব সময় এমন ভাব করে যে সে সব জানে। কিন্তু দেখা যায় সে কাজ পরিপূর্ণ ভাবে জানেনা। যে কোন কাজ পুরোপুরি জানতে হবে। শুধু মিছে স্মার্টনেস ধরে রাখার জন্য না জেনেও জানি কথাটা বলা যাবে না। না জানলে জানতে হবে। আর শুধু ডিগ্রী থাকলেই সফল হবেন এমনটা মনে করা যাবে না। কারণ যুগ পরিবর্তন হচ্ছে। সময়ের সাথে নিজেকে আপডেট করতে হবে। নাহলে পিছিয়ে পরবেন। বিল গেটস, ওয়ারেন বাফেটের মত ধনীরা এখনো প্রতিদিন বই পড়েন শেখার জন্য।

ব্যর্থতার কারণ ৪: অযথা টিভি দেখাঃ আপনি হয়তো বলতে পারেন টিভি দেখা টা ব্যর্থতার কারণ কিভাবে হতে পারে। কিন্তু আপনি জানেন না টিভি দেখা দুই প্রকার। এক প্রকার মানুষ টিভি দেখে তার বিষয় ভিত্তিক। যে জিনিসটা তার জানা প্রয়োজন। ধরুন কেউ নতুন একটা ব্যবসা শুরু করবে তার উপর কোনো টকশো হচ্ছে সে সেটা দেখবে। কিন্তু কোনো কাজ নেই আপনি শুধু সময় পার করার জন্য টিভি দেখছেন তাহলে আপনার জন্য ব্যর্থতা অপেক্ষা করবেই। আর টিভি দেখার পর সাথে সাথে কোনো কাজে কেউ মনযোগ দিতে পারেনা। ক্লান্তি লাগে। বিছানায় শুয়ে পরতে ভালো লাগে। তাই টিভি দেখুন যেন উপকৃত হন সেরকম কিছু। সফল মানুষরা অল্প একটু কাজে লাগবে এজন্য টিভিও দেখেন না।

ব্যর্থতার কারণ ৫: সঠিক খাবার না খাওয়াঃ শরীর কে মোটা বানায় বা নিজেকে অলস বানিয়ে দেয় এমন খাবার না খাওয়া। সফল মানুষরা খাবার খায় পুষ্টিকর খাবার। সেই সাথে তারা খান শরীর কে এনার্জী দেয় এই জাতীয় খাবার। আর অলসরা বা ব্যর্থ হবে এমন মানসিকতার মানুষ খায় ফাস্ট ফুড। সঠিত খ্যাদাভাস সফলতার জন্য খুবই জরুরী। আর সেই সাথে ব্যায়াম করাটাও গুরুত্বপূর্ণ। সফল ব্যক্তিদের জীবনী ঘেটে দেখুন তারা প্রত্যেকেই ব্যায়াম করার সাথে জড়িত।

ব্যর্থতার কারণ ৬: একটানা কাজ না করাঃ ব্যর্থ মানুষদের আরেকটি লক্ষণ হল একটানা কাজ না করা। ‍যদি কেউ মোটা হচ্ছে তাহলে সে ব্যায়াম শুরু করে । দুই একদিন ব্যায়াম করেই আবার আগের মত ফাস্টফুড খাওয়া শুরু। অথবা তারা ডায়েট শুরু করেন দেখা যায় মাঝখানে খাওয়ার কোনো উপলক্ষ আসলে তারা নিজেকে বোঝায় একটা দিনই তো কাল থেকে আবার শুরু করবো। এভাবে কোনো কিছু হয়ে ওঠেনা। যা করবেন তা অভ্যাসে পরিণত না হওয়া পর্যন্ত তার ব্যতিক্রম করা যাবেনা।

এই ছিলো ব্যর্থ মানুষদের ছয়টি কারণ। এসবতো আপনি জেনে নিলেন এখন এসব থেকে নিজেকে দুরে রাখুন আর সফলদের অনুসরণ করে হয়ে উঠুন অনুকরণীয়।

Leave a Comment